খোদার উপর খোদগিরি

ঈশ্বর নিরাকার না সাকার। এই নিয়ে তর্ক বহুদিনের। নানা মুনির নানা মত। যার সার কথা বলে গিয়েছেন রামকৃষ্ণ। যত মত তত পথ। অর্থাৎ কোন মতই ভ্রান্ত নয়। কোন পথই অগম্য নয়। যার যেমন আধার তার তেমন দৌড়।

পড়তে থাকুন “খোদার উপর খোদগিরি”

ঝুল ও ঝুলকাঠি

পথ চলতি পথিককে হঠাৎ যদি দ্যুম করে প্রশ্ন করা যায়। ঝুল ঝেরেছেন আজ? অবশ্যই প্রশ্নকর্তার মস্তিষ্কের সুস্থতা নিয়েই সন্দেহ দানা বাঁধবে শ্রোতার মনে। কিন্তু সংসার সামলানো সাধারণ গৃহস্থ মানুষ মাত্রেই জানেন ঝুল কি সংঘাতিক বস্তু।

পড়তে থাকুন “ঝুল ও ঝুলকাঠি”

ঘর সাজানো শো-পিস

না সেই দিন আর নাই। বাংলা সাহিত্যের অমূল্যরতন হাতে নিমন্ত্রণ রক্ষা করতে যাওয়ার সংস্কৃতি বেশ কয়েক দশক আগেই বিলুপ্ত হয়েছে। কেউ যদি সেই সংস্কৃতি রক্ষায় প্রয়াসীও হন। সমাজে উপহাসের পাত্র হওয়ার সম্ভাবনা ষোলআনা।

আজকে যাদের জন্মদিন

প্রত্যেক মানুষের কাছে নিজের জন্মদিনের অবশ্যই একটি বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। আজকে যাদের জন্মদিন দিনটি আনন্দ উদযাপনের। বছরের প্রতিটি দিনই কোন না কোন মানুষের জন্মদিন। সারা বছরের বাকি দিনগুলির সাথে এর একটি জায়গায় তফাৎ। সেটি হলো, আজকের দিনটি আমার। পড়তে থাকুন “আজকে যাদের জন্মদিন”

বই পড়া ও না পড়া

না, আজকে আমি কোন বই পড়ি নি। আশা করি অধিকাংশ বাঙালিই আজ সিলেবাসের বাইরে, পরীক্ষার বাধ্যবাধকতার বাইরে নিছক বই পড়ার আনন্দ পেতেই কোন বই পড়েননি। আমাদের দুই বাংলা জুড়েই অবশ্য শিক্ষিত অক্ষরজ্ঞান সম্পন্ন বাঙালির সংখ্যা কোটি কোটি। পড়তে থাকুন “বই পড়া ও না পড়া”

বিদ্যাসাগরের বীর্য

বিদ্যাসাগরের বীর্য। তিনি কবে কোন কালে কোথায় কোথায় কোন নারীকে বিলিয়ে গিয়েছিলেন আর সেই বীর্যসংবাদ কার কার পূর্বপূরুষের কানে কানে জানিয়ে দিয়ে গিয়েছিলেন, তাই নিয়ে বঙ্গ সমাজে বেশ একটা হইচই পড়ে গিয়েছে। পড়তে থাকুন “বিদ্যাসাগরের বীর্য”

জামার মাপ হাতার কাট

অনেকদিন আগেই তিনি আক্ষেপ করে লিখেছিলেন, যারা অন্ধ সবচেয়ে বেশি আজ চোখে দেখে তারা। তার পর সাত দশকের বেশি সময় কেটে গিয়েছে। সমাজ রাজনীতি সর্বত্র সেই অন্ধদেরই দাপট সবচেয়ে বেশি আজ। এবং পরিব্যাপ্ত এই দাপটে, যারা এখনো দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলেন নি। পড়তে থাকুন “জামার মাপ হাতার কাট”

খাট

গড়পরতা বাঙালির জীবনকাব্য বোধহয় শুরুই হয় ফুলশয্যার খাটের স্বপ্নে বিভোর হয়েই। গত শতকের অধিকাংশ জনপ্রিয় ছায়ছবির সমাপ্তি ঘটানো হতো দর্শকের মনে নায়ক নায়িকাকে সেই ফুলশয্যার খাটে পৌঁছিয়ে দিয়েই। এবং গোটা সিনেমা জুড়ে একটিই প্রতীক্ষার বীজ বপন করে রাখা থাকতো। পড়তে থাকুন “খাট”

অশ্লীলতার দিগন্তে

আসুন আজ একটু অশ্লীলতা নিয়েই চর্চা করি বরং। জানি। আপনি আমি। আমাদের মতো শিক্ষায় দীক্ষায় উন্নত মানুষদের অশ্লীল কথা শোনাও পাপ। তাই আমরা কোন অশ্লীল কথা বলতেও রাজি নই। শুনতেও রাজি নই। লিখতেও রাজি নই। সর্বসমক্ষে পড়তেও রাজি নই। পড়তে থাকুন “অশ্লীলতার দিগন্তে”

আসুন প্রেমে পড়ি

কবির কথায় প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে। কে কোথা ধরা পড়ে কে জানে। এ যেন প্রায় কোভিড-১৯’র মতোই। কখন যে কার হৃদয় হরণ করবে কেউ জানে না। কিন্তু ঐ একটাই তফাৎ। প্রেমের ফাঁদে ধরা দিতে কে না উন্মুখ। তখন আর কেউ মাক্স পড়ে ঘোরে না। পড়তে থাকুন “আসুন প্রেমে পড়ি”